করোনা শনাক্তের হার ৭ শতাংশে নামলো

5

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৬ হাজার ৭৯৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ছাড়া দেশে নতুন করে আরও দুই হাজার ৫৮৮ জন আক্রান্ত হয়েছে। ফলে নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ০৩। আগেরও দিন যা ছিল ৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ। শনাক্তের হার কমলেও মৃত্যুর সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে বেড়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ১৫ লাখ ২৪ হাজার ৮৯০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছে তিন হাজার ৬১৭ জন। এ নিয়ে দেশে মোট ১৪ লাখ ৬৮ হাজার ২১১ জন করোনা থেকে সুস্থ হলো।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৮০০টি ল্যাবে ২৯ হাজার ৫৪১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা সংগ্রহ করা হয় ২৯ হাজার ৪৯৫টি। করোনা শনাক্তের হার আট দশমিক ৭৬ শতাংশ। এই পর্যন্ত গড় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৬২ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৫৮ জন মৃত্যুবরণকারীর মধ্যে পুরুষ ৩৫ জন ও নারী ২৩ জন। এ পর্যন্ত পুরুষ মৃত্যুবরণ করেছে ১৭ হাজার ২৯৪ জন ও নারী নয় হাজার ৫০০ জন।

মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে দুইজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে সাতজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে সাতজন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে একজন ও ১০০ বছরের ঊর্ধ্বে রয়েছেন একজন।

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৯ জন, রাজশাহী বিভাগে তিনজন, খুলনা বিভাগে পাঁচজন, সিলেট বিভাগে আটজন ও রংপুর বিভাগে একজন। এ ছাড়া সরকারি হাসপাতালে ৫০ জন, বেসরকারি হাসপাতালে আটজন মৃত্যুবরণ করেছেন।

দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত বছরের ৮ মার্চ। ওই বছরের ১৮ জুন তিন হাজার ৮০৩ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে লাখ ছাড়িয়েছিল করোনার রোগী। সেদিন পর্যন্ত মোট শনাক্ত ছিল এক লাখ দুই হাজার ২৯২ জন। এ ছাড়া দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে গত বছরের ১৮ মার্চ।