কাকরাইলে মা-ছেলে হত্যা, স্বামীসহ তিনজনের মৃত্যুদন্ড

15

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর কাকরাইলে মা ও ছেলে হত্যা মামলায় স্বামী সহ তিন জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। আজ রোববার (১৭ জানুয়ারী) ঢাকা তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ রবিউল আলম এ রায় ঘোষনা করেন।

আদালত সূত্রে জানাযায়, ২০১৭ সালের ১ নভেম্বর কাকরাইলের আব্দুল করিমের প্রথম স্ত্রী শামসুন্নাহার (৪৬) ও ছেলে শাওনকে(১৯) গলা কেটে হত্যা করা হয়। ঘটনার পরদিন শামসুন্নাহারের ভাই আশরাফ আলী বাদী হয়ে রমনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় আসামী করা হয় নিহতের স্বামী আব্দুল করিম, দ্বিতীয় স্ত্রী শারমিন মুক্তা, মুক্তার ভাই মো. আল আমিন ওরফে জনিসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে।

২০১৮ সালের ১৬ জুলাই তদন্তকারী কর্মকর্তা রমনা থানার ইন্সপেক্টর মো. আলী হোসেন এ মামলার চার্জশিট দাখিল করেন।মামলার চার্জশিটে নিহতের স্বামীসহ তিনজনকে আসামী করা হয়। পুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করলে আসামীরা ১৬৪ ধারায় স্বাকারক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

এরপর বিচারক ২০১৯ সালের ৩১ জানুয়ারী অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করেন। এ মামলায় বিচারের সময় অভিযোগ পত্রের ২২ সাক্ষীর মধ্যে ১৭ জনের সাক্ষী শোনেন আদালত। ১২ নভেম্বর তিন আসামী তাদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার চান।

দুইপক্ষের যুক্তিতর্কের শুনানি শুরু হয় ১৩ ডিসেম্বর। গত ১০ জানুয়ারী এ মামলায় রাষ্ট্র ও আসামীপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়। আজ ১৭ জানুয়ারী আদালত রায়ের জন্য দিন ধার্য্য করেন। আজ রায়ে আদালত তিনজনকে ফাঁসির আদেশ দেন। ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত তিনজন হলেন, নিহতের স্বামী আবদুল করিম, করিমের দ্বিতীয় স্ত্রী শারমিন মুক্তা, ও মুক্তার ভাই আল আমিন।