গোপালগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর উপহার দেওয়া ঘর পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক

8

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে (২০২০–২০২১) অর্থ বছরে আশ্রায়ণ -২ প্রকল্পের অধীন “ভূমিহীন ও গৃহহীন অর্থাৎ “ক” শ্রেণির পরিবারের জন্য গৃহ (দুই কক্ষ বিশিষ্ট সেমি পাকা) নির্মাণ” এর আওতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া ২ শতাংশ জমি সহ সেমিপাকা ঘর পেয়ে ভূমিহীন পরিবার গুলো সত্যিই উচ্ছসিত। গোপালগঞ্জে প্রায় ২ হাজার ঘরের মধ্যে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ২১ ইউনিয়নে ১ম পর্যায়ে ৪৮০টি ঘর নির্মাণ সম্পন্ন করে উপকারভোগীদের মাঝে ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়। যেখানে বিদ্যুৎ বিশুদ্ধ খাবার পানি সহ সকল প্রকার নাগরিক সুবিধাদি বাস্তবায়িত হয়েছে। এছাড়া ২য় পর্যায়ে ২৮১টি ঘরের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।

গোপালগঞ্জে গৃহহীনদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার দেওয়া ঘরগুলো আবারো সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা। পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তিনি ২য় বার করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ হয়ে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন শেষ করে সোমবার (১২ জুলাই) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উলপুর ইউনিয়নের মালেঙ্গা, উরফি ইউনিয়নের মধুপুর এবং লতিফপুর ইউনিয়নের চর মানিকদাহ এলাকায় নির্মাণ সম্পন্ন ও নির্মাণাধীন ঘরের কাজ পরিদর্শন করেন।

এ সময় তিনি ঘরে বসবাসরত উপকারভোগীদের ঘরে বসবাস করতে কোন সমস্যা হচ্ছে কিনা এবং ঘরে কোন ত্রুটি-বিচ্যুতি রয়েছে কিনা সে সম্পর্কে খোঁজখবর নেন এবং নিজেদের ঘরের প্রতি যত্নবান হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। এছাড়া করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে সরকার ঘোষিত লকডাউন উঠে যাওয়ার পর তিনি উপকারভোগী মা-বোনদেরকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে হস্ত ও কুটির শিল্প বিষয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রদানের কথা জানান। জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা করোনা মোকাবেলায় সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও মাস্ক ব্যবহার করে চলাফেরা করার পরামর্শ দেন।

এ সময় জেলায় বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা গোপালগঞ্জে নির্মাণাধীন ঘরগুলো নিয়ে কোনো ত্রুটি-বিচ্যুতি রয়েছে কিনা প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উরফি ইউনিয়নের মধুপুর আশ্রয়ন প্রকল্পে নির্মাণাধীন ২ টি ঘর ভারী বর্ষণে আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলো। পরে সেগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে মেরামত করে দেওয়া হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থার কাজও দ্রুত গতিতে চলছে বলেও জানান তিনি। এছাড়া ঘর নির্মাণ তদারকিতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ সর্বদা নিয়োজিত রয়েছেন। এটা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন, আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজস্ব উদ্যোগ, গুণগতমান বজায় রেখে ঘরগুলোর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করতে কোন আপস নয়।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ ইলিয়াছুর রহমান, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাশেদুর রহমান, উপজেলা বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আলাউদ্দিন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী উজ্জল মন্ডল, উলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ কামরুল হাসান বাবুল, হরিদাসপুর ইউপি চেয়ারম্যান মুন্সী মকিদুজ্জামান, উরফি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন গাজী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।