চুয়াডাঙ্গায় ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত করে ফেসবুকে পোস্ট দেয়া কথিত সাংবাদিক মানিক খান গ্রেফতার

249

আহসান আলম, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গায় ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস পোস্ট করার অভিযোগে মানিক খান (২৫) নামের এক কথিত সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) বিকেল ৬টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে দর্শনা থানা পুলিশ। আটককৃত মানিক খান চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের গ্রীসনগর গ্রামের জাহাঙ্গীরের ছেলে।

সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (২৩ ফ্রেবুয়ারী) দুপুরে মানিক খান তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে মসজিদ অবমাননা এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে একটি স্ট্যাটাস পোস্ট করেন। পরে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ও যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে মানিক খান তিনি আইডি থেকে সেই স্ট্যাটাসটি সরিয়ে ফেলেন।

পাঠকদের উদ্দেশ্যে পোষ্টটি হুবহু তুলে ধরা হলো- “যেখানে সেখানে মসজিদ না তৈরি করে কিছু খেলার মাঠ বানালে শিশু কিশোরদের মানসিক বিকাশ ঘটত। এত মসজিদ দিয়েও সমাজের মানবিক বিপর্যয় রোধ করা যাচ্ছে না। কারণ, মসজিদ সহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সমূহ খেলার মাঠ এবং সাংস্কৃতিক ক্লাব- এই সব কিছুরই প্রয়োজন আছে সমাজে। কিন্তু শুধু মসজিদ বানানোর কারণে সমাজটা এত বিষাক্ত” এমন একটি পোষ্ট করলে তা মুহুর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। এতে ধর্মপ্রাণ মানূষের মাঝে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক গ্রুপ ” চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক ভাষা পরিষদের অন্যতম পরিচালক বলেন, এটি একটি ধর্মীয় উস্কানি। এখানে স্বয়ং মসজিদকে অবমাননা করা হয়েছে। আমরা এর তিব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা প্রশাসনকে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করার দাবি জানাচ্ছি।

এলাকার অনেকে জানিয়েছেন, মানিক খান কথিত সাংবাদিক। তিনি সাংবাদিকতার নাম ভাঙিয়ে এলাকায় বিভিন্ন অপরাধে জড়িত ছিল। দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মাহবুবুর রহমান ঢাকা পোষ্টকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপারের নির্দেশে মঙ্গলবার সন্ধার আগে আমরা মানিক খান নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছি। সে ফেসবুকে একটি ধর্মীয় বিরোধী স্ট্যাটাস দিয়েছে। যা স্থানীয় ধর্মপ্রাণ মানুষের মধ্যে উস্কানিমূলক ও আশান্তি বিরাজের সৃষ্টি করতে পারে। পুলিশ সুপারের নির্দেশে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মানিক খানকে আজই বিজ্ঞ আদালত সোপর্দ করা হবে। এবিষয়ে কোন অভিযোগ হয়েছে কিনা জানতে চাইলে বলেন, আমার উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা এনিয়ে আলোচনা করছেন। উনারা সে নির্দেশনা দিবেন সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবো বলে জানান তিনি।