চুয়াডাঙ্গায় সীমান্তে অনুপ্রবেশেকারী শিশু সহ ৪ জন বাংলাদেশী আটক

15

দর্শনা (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলা সীমান্তে ভারত থেকে আসা বাংলাদেশেী অবৈধ অনুপ্রবেশের সময় শিশু সহ ৪ জন কে আটক করেছে বিজিবি। আটককৃত হলেন যশের জেলার শার্শা উপজেলার বেরি রানায়নপুর গ্রামের আবু তাহের মেম্বারের কন্য ছালমা বেগম (৬৫) ও তার ছেলে শিশু সিহাব(২ বছর ৬ মাস) ।

বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯ টার দিকে ছালমা বেগম কে দামুড়হুদা উপজেলার মুন্সীপুর সীমান্তে থেকে আটক করা হয়। এ ছাড়া মঙ্গলবার একই সীমান্ত হতে খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানার সুবনা গ্রামের মৃত দরবেশ শেখের ছেলে নওশেদ শেখ (৬৫) ও তার বোন খালেদা বেগম (৩০) আটক করে। এদিকে ভারতীয় করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব রোধে সীমান্তে চুয়াডাঙ্গা জেলার ১১৩ কিলোমিটার সীমান্তবর্তী বিজিবি বাড়তি গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি কঠোর নজরদারি মাইকিং জনগণ কে সচেতনতা মাস্ক বিতরণ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেও নিয়ে মতবিনিময় সভা করেছে।

বিজিবি জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯ টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলার মুন্সীপুর সীমান্তের বিপরিতে ভারতের নদীয় জেলার হাটখোলা সীমান্ত দিয়ে অবৈধ ভাবে ভারত থেকে আসা এক নারী শিশু সহ বাংলাদেশী প্রবেশ করে। এ সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মুন্সিপুর বিজিবি ক্যাম্পের সুবেদার বারেক মোল্লার নেতৃত্বে ওই নারী ছালমা বেগম ও তার শিশু ছেলে সিয়াব কে আটক করে। মঙ্গলবার একই সীমান্ত হতে নওশেদ ও খালেদা বেগম কে আটক করে। এদিকে ভারতীয় করোনা ভাইরাস রোধে গত ১ সপ্তা ধরে সীমান্তে বিভিন্ন কর্যক্রমের অংশ বিসাবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলা সহ জেলার ১১৩ কিলোমিটার সীমান্তবর্তী এলাকায় অবৈধ অনুপ্রেবেশ ঠেকাতে সীমান্তে গোয়েন্দা তৎপরতা কঠোর নজরদারি বৃদ্ধি করেছে। সীমান্তের জিরো পয়েন্টের ভারতীয় কৃষক নাগরিকদের সাথে বাংলাদেশী কৃষকদের দূরত্ব স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার লক্ষে সীমান্ত বিভিন্ন এলাকায় গ্রামে গ্রামে মাইকিং গণ সংযোগ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে মতবিনিময় সভা করা হয়েছে। সভায় পৃথক ভাবে অংশ নেন চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি‘র অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোঃ খালিকুজ্জামান বিজিবি’র উপ-অধিনায়ক মেজর নিস্তার আহমেদ ও এডি ইমরান হোসেন।

এবিষয়ে চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি‘র অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোঃ খালিকুজ্জামান বলেন, ভারতীয় করোনা প্রকপ ধারন করেছে। এই প্রাদুর্ভাব বাংলাদেশী সীমান্ত রোধ করতে সীমান্তে ভারত থেকে বাংলাদেশী অবৈধ ভাবে অনুপ্রবেশ ঠেকাতে গোয়েন্দা তৎপরতা কঠোর নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকাবসীদের গণ সচেতনতা করা হচ্ছে। সীমান্তে বিজিবি সুক্ষ ভাবে রাত দিন সীমান্তে অবস্থান করছে।