ধোবাউড়ায় সওজের নতুন রাস্তায় ফাটল, মাটি দিয়ে ঢাকার চেষ্টা ঠিকাদারের

58

সোহাগ রেমা, ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার আগেই ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে বর্ডার রোড নামে পরিচিত সড়ক ও জনপথের রাস্তায়।

উপজেলার নোয়াপাড়া গ্রামে নবনির্মিত সড়কটিতে মারাত্মক ফাটল দেখা দিয়েছে। যেকোন সময় ধ্বসে পড়তে পারে সড়কটি। স্থানে স্থানে বাঁশ ও কলাগাছ দিয়ে ভাক্সগন ঠেকানোর চেষ্টা চলছে। শাক দিয়ে মাছ ঢাকার মতো স্থানে স্থানে মাটি দিয়ে ফাটল ঢাকার চেষ্টা করা হচ্ছে। সড়ক রক্ষা করার জন্য কংক্রিটের যেসব ব্লক নির্মাণ করা হচ্ছে, সেগুলোও নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

পাশেই পুরনো একটি মাটির রাস্তা থাকার পরেও রহস্যজনক কারণে পুরনো নদীর পাশ দিয়ে ব্যক্তিগত কৃষি জমি নষ্ট করে, নতুন মাটির রাস্তা নির্মাণ করে তার উপর তাড়াহুড়ো করে কার্পেটিং করায় রাস্তা ভেঙ্গে যাচ্ছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সাদেক মিয়া বলেন, ‘নোয়াপাড়া গ্রামের অংশটিতে নিম্নমানের কাজ হয়েছে। আমি বারবার প্রতিবাদ করলেও ঠিকাদারের লোকজন তাদের খেয়ালখুশি মতো কাজ করেছে। রাস্তার সাব-বেজে বালু দেওয়ার কথা থাকলেও ফসলি ক্ষেত থেকে মাটি তুলে দেওয়া হয়েছে।

সড়ক ও জনপথের ময়মনসিংহ অফিস সূত্রে জানা যায়, ধোবাউড়া-হালুয়াঘাট অংশে ৪২ কিলোমিটার রাস্তায় প্রায় ১২৫ কোটি টাকা বরাদ্দে চারটি ভাগে ৪ জন ঠিকাদার কাজ করছেন। টেংরামারি ক্যাম্প থেকে দক্ষিণ মাইজপাড়া ইউনিয়নের কিছু অংশ নিয়ে প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়কের কাজ করছে সেতুলি কন্সট্রাকশন।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, ‘রাস্তা ভেঙ্গে গেলে আবার পুনঃনির্মাণ করা হবে। তিন বছর পর্যন্ত ঠিকাদারের সিকিউরিটি মানি জমা থাকবে।