নওগাঁয় ডিবি পুলিশের পৃথক অভিযানে ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

6

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁয় পৃথক অভিযানে দেড় কেজি গাঁজা, ২১ বোতল ফেন্সিডিল এবং ৩’শ পিচ ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ চারজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ। বুধবার রাতে জেলার বদলগাছী, ধামইরহাট এবং সদর উপজেলার পৃথক তিনটি স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলেন- জেলার বদলগাছী উপজেলার কুশারমুড়ী উত্তরপাড়া গ্রামের আইছের আলীর ছেলে সাইদুল ইসলাম ভূট্টু(৪৫) ও একই উপজেলার ভরট্র কাজীপাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে আল আমিন(২১), ধামইরহাট উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের মৃত খোরশেদ আলীর ছেলে জিল্লুর রহমান(৪৫) এবং বগুড়া জেলার আদমদিঘী উপজেলার নামাপোতা গ্রামের আঃ হামিদের ছেলে ফিরোজ মামুন(৩৬)।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) কেএম সামসুদ্দিনের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান মিজানসহ সঙ্গীয় ফোর্স বদলগাছী উপজেলার বালুভরা ইউনিয়নের কুশারমুড়ী বিলে মফের মেম্বারের দিঘীর সামনে অভিযান পরিচালনা করে সাইদুল ইসলাম ভূট্টু ও তার সহযোগী আল আমিনকে গ্রেফতার করে। এসময় তাদের কাছ থেকে ৭৫ হাজার টাকা মূল্যের দেড় কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে বদলগাছী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অপরদিকে, একই সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহসিনসহ সঙ্গীয় ফোর্স ধামইরহাট উপজেলার ওমার ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে মাদক ব্যবসায়ী জিল্লুর রহমানকে গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছে থাকা একটি বাজারের ব্যাগ থেকে আমদানী নিষিদ্ধ ২১ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ২১ হাজার টাকা। তার বিরুদ্ধে ধামইরহাট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অন্যদিকে, ওই রাতেই গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তফাসহ সঙ্গীয় ফোর্স জেলার সদর উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের খাট্রা সাহাপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মাদক ব্যবসায়ী ফিরোজ মামুনকে গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছে থাকা একটি ব্যাগ থেকে তিনশত পিচ ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে নওগাঁ সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নওগাঁ জেলা গোয়েন্দা শাখার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম শামসুদ্দিন বলেন, জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পৃথক অভিযানে ৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পৃথকভাবে ৩টি থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে ডিবির জিরো টলারেন্স অব্যাহত রাখা হবে।