নন্দীগ্রামে এগিয়ে গেলেন মমতা

6

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভোট গণনার দিন বেলা গড়াতেই পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের জয়ের বিষয়টি পরিষ্কার হতে থাকে। তবে প্রথম কয়েক দফা ভোট গণনায় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে পিছিয়ে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শেষ পর্যন্ত ১২ দফা গণনার সময় এগিয়ে গেলেন তিনি। শুভেন্দু অধিকারীকে পিছনে ফেলে নন্দীগ্রামে কয়েক হাজার ভোটে এগিয়ে রয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

নন্দীগ্রাম ছাড়াও গোটা রাজ্যেই তৃণমূলের ঝড় দেখা যাচ্ছে। তৃণমূল বলছে, ‘পশ্চিমবঙ্গ নিজের মেয়েকে চায়’ এই স্লোগানকে প্রমাণ করা এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা। এমনকি পিছিয়ে থাকা জেলা মালদহ, ঝাড়গ্রাম, নদিয়া জেলাতেও তৃণমূলের প্রার্থীরা এগিয়ে রয়েছেন। বিজেপিরর টার্গেট ছিল এবার পূর্ব-মেদিনীপুর, বলা হচ্ছিল শুভেন্দু অধিকারীর গড় এই এলাকা। কিন্তু ভোটের দিন বেলা গড়াতে দেখা যাচ্ছে ব্র্যান্ড মমতার সামনে দাঁড়াতেই পারছে না বিজেপি। খবর নিউজ এইট্টিনের

শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন, মাননীয়াকে হাফ লাখ ভোটে হারাব।আর মমতা বলেছিলেন, এক পায়েই খেলা দেখাবেন। ভোটের ফল যতই এগোচ্ছে ততই প্রকট হচ্ছে তৃণমূলের খেলা। তৃণমূল নেত্রীর করিশ্মাতেই এই বাজিমাত মানছে সবাই।

এদিন নন্দীগ্রামের প্রথম দফার গণনা শেষে সামান্য হলেও পিছিয়ে পড়ে তৃণমূল। প্রথম রাউন্ড ভোটের শেষে তৃণমূলের প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পেয়েছিলেন ৫৭৯০ টি ভোট। বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী পান ৭২৮৭টি ভোট। বলাই বাহুল্য গোটা দেশের নজরই রয়েছে এই নন্দীগ্রাম কেন্দ্রটিতে। প্রথম রাউন্ডের ফলে অবশ্য কিছুই বলা যায় না। উল্টে যেতে পারে যে কোনো সমীকরণ।