‘‘নিপীড়ন যাক ,সুস্থ আতঙ্কহীন জীবনের স্বপ্ন দেখুক নারীও’’: জয়া

3

বিনোদন ডেস্ক : নারীদের ওপর অত্যাচারের প্রতিবাদে প্যান কমনওয়েলথ প্ল্যাটফর্মে মুখ খুললেন জয়া আহসান। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অনেক তারকা শামিল এই প্রতিবাদ প্রচারে, সেখানেই ‘নো মোর’ বললেন ঢাকা-কলকাতার অভিনেত্রী।

জয়া বলেন, ‘‘হতে পারে এই অত্যাচার যৌন নিপীড়ন। হতেই পারে মারধর, পারিবারিক সহিংসতা। অনন্তকাল ধরে যা নীরবে সহ্য করে আসছেন নানা বয়সের মেয়ে। আজ পর্যন্ত ঘটনাগুলোর প্রতিবাদ করেনি কেউ! অত্যাচার থামানোরও চেষ্টা করেনি। উল্টে সাফাই গেয়েছে, এটা ব্যক্তিগত ঘটনা। এই নিয়ে বাইরে কথা হবে কেন? এবার বলার সময় এসেছে, ‘আর না’।’’

কমনওয়েলথের সপ্তাহব্যাপী এই বিশেষ প্রচারে ৫৪টি সদস্য দেশ যুক্ত। সেই মঞ্চে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে জয়া গর্বিত। জানালেন, ঘরের কোনায় গুমরোতে গুমরোতে অত্যাচারে, অবিচারে মৃতপ্রায় নারী। মহামারির মতো সারা বিশ্বে ছেয়ে গিয়েছে এই ন্যক্কারজনক ঘটনা। সমাজ এর বিরুদ্ধে মুখ খোলেনি। মেয়েদের কোনো নিরাপত্তা দেয়নি।

তিনি প্রশ্ন তোলেন, কভিড-১৯ নিয়ে সবাই আতঙ্কিত। নিত্যদিন ঘটে চলা অকথ্য অত্যাচার যে কত নারীর জীবন শেষ করে দিচ্ছে সেটা আতঙ্কের নয়? দুনিয়া থেকে, নারীর জীবন থেকে এই ধরনের কলঙ্কিত অধ্যায় মুছে ফেলতে তাই ডাক দিয়েছেন, ‘‘নিপীড়ন যাক। ভালোবাসা আসুক। সুস্থ, আতঙ্কহীন জীবনের স্বপ্ন দেখুক নারীও।’’

জয়ার মতে, সমাজের আনাচকানাচে একটাই কথা ধ্বনিত হোক, ‘আর না’। তবেই সম্মান ফিরবে নারী জীবনে।

এ দিকে করোনার কারণে অনেক দিন অভিনয় থেকে দূরে আছেন জয়া। তিনি জানিয়েছেন, অভিনয়ে ফিরতে উদ্‌গ্রীব হয়ে আছেন।

তেমন আবহে ‘ছেলেধরা’ নামের সিনেমায় যুক্ত হওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। পরিচালনা করছেন কলকাতার শিলাদিত্য মল্লিক, শুটিং শুরু হবে অক্টোবরে। আরও অভিনয় করছেন অনুরাধা মুখার্জি, প্রান্তিক ব্যানার্জি ও ইশান মজুমদার।

কিছুদিন আগে কলকাতার সংগীতকার তথা জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সিনেপরিচালক ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্তর একটি ছবিতে জয়া আহসানের যুক্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ছবিটির নাম ‘অসতো মা সদগময়’। ইন্দ্রদীপের ভাবনাতেই করোনা পরিস্থিতি ফ্রেমে তুলে ধরবেন জয়া আহসান ও প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এর আগে দুই তারকা ‘রবিবার’ নামের একটি ছবি করেন।

জয়াকে সর্বশেষ দেখা গেছে কলকাতার ‘রবিবার’ ছবিতে। মুক্তির অপেক্ষায় আছে অর্ধাঙ্গিনী, বিনি সুতোয়, ভূতপরী ও ঢাকার ‘অলাতচক্র’।