বাগেরহাট ডায়াবেটিক সমিতিতে অনিয়মের অভিযোগ

19

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাট ডায়াবেটিক সমিতিতে ব্যাপক অনিয়ম,দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যাবহারের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের কাছে দেয়া সচেতন বাগেরহাট বাসীর নামে একটি প্রচারপত্রে এ সকল অভিযোগ তুলে ধরা হয়েছে।

প্রচারপত্রে লেখা হয়েছে,সমিতির বিদায়ী সভাপতি সমিতির আর্থিক উন্নয়নের সুযোগ নিয়ে সম্প্রতি ভেংগে ফেলা বৃটিশ আমলে নির্মিত বাগেরহাটের পুরাতন জেলখানার স্থাপনাসমুহ সমিতির নামে নিলাম ক্রয় করে প্রায় কোটি টাকা পকেটস্থ করেছেন।

এখানে থাকা পাঞ্জেগানা ও জুম্মার নামাজ আদায় হওয়া মসজিদটি বাদে টেন্ডার আহবান করা হয়েছিল। তিনি সেই মসজিদটিও সমুলে উত্তোলন করে একই ভাবে বিক্রি করেছেন। যার লভ্যাংশ সমিতির তহবিলে থাকার কথা ছিল কিন্তু তা নেই। সমিতির প্যাথলজিতে কমদামী রিয়েজেন্ট ব্যাবহারের অভিযোগ করা হয়েছে। এখানকার প্যাথলজি থেকে ব্লাড সুগারসহ নানা পরীক্ষায় একেক সময় একেক রকম ভৌতিক রেজাল্ট দেয়া হয়। ফলে অনেক রোগী ভুল চিকিৎসার শিকার হচ্ছেন। যে কারনে এই সমিতি রোগীদের আস্থা হারাচ্ছে, রোগী আসার সংখ্যা কমছে।

গঠনতন্ত্র সংশোধন করে সুকৌশলে নির্বাহী কমিটির চেয়ে কম সংখ্যক সদস্য নিয়ে বার্ষিক সাধারন সভা করার বিধান চালু করেছে। বার্ষিক সাধারন সভার কমপক্ষে ৭ দিন আগে ডাকযোগে আয় ব্যায়ের হিসাব সকল আজীবন সদস্যকে দেওয়ার বিধান থাকলেও তা করা হয় না। একান্ত বাধ্যগত লোক ব্যতীত অন্য কোন ব্যাক্তি যাতে ভোটাধিকার প্রাপ্ত আজীবন সদস্য হতে না পারে সেজন্য আজীবন সদস্য ভুক্তির ফি বাড়িয়ে ১০০০ টাকার স্থলে ৩৬০০ টাকা করা হয়েছে। এদের প্রতিহত করার আহবান জানিয়ে প্রচার পত্র বিলি করা হচ্ছে।