সুমন ভূঁইয়াকে আশুলিয়া যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দেখতে চায় তৃণমূল

254

জাহাঙ্গীর আলম প্রধান,আশুলিয়া: দীর্ঘ ৪বছর ধরে আশুলিয়া থানা যুবলীগের দলিয় কার্যক্রম চলছে আহ্বায়ক কমিটি দিয়ে। গুঞ্জন উঠেছে অল্প সময়ের মধ্যেই হতে পারে পূর্ণাঙ্গ কমিটি । আর এই পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে আশুলিয়া থানা যুবলীগের সাবেক প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়াকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দেখতে চান তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়ার বাবা সৈয়দ আহাম্মেদ ভূঁইয়া ছাত্র জীবন থেকেই আওয়ামী রাজনীতির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত এবং দু’দুবারের নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান। অত্র এলাকায় তাদের পুরো পরিবারকে আওমী পরিবার বলেই সকলে চেনে। সেই সুবাদে আওয়ামী রাজনীতির ঘনিষ্ঠ পরিম-লে বেড়ে ওঠা সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়া ইয়ারপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

পরবর্তীতে থানা যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন কালে প্রচুর ত্যাগ শিকারের মাধ্যমে দলের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে নিজের মেধা শ্রম আর দলের প্রতি একনিষ্ঠ ভালোবাসায় অত্র এলাকায় অসংখ্য নেতাকর্মী তৈয়ার করে সংগঠন সুসংগঠিত করে রেখেছিলেন। এবং দীর্ঘদিন পদবঞ্চিত থাকার পরও সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়া আগের মতই দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন সাবেক ও বর্তমান যুবলীগের অনেকে।

ফলে যুবলীগের তৃণমূল নেতাকর্মীসহ আওয়ামীলীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা নিজেদের ফেসবুক আইডিতে ঊর্ধ্বতন নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণে সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়ার পক্ষে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন । সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়াকে আশুলিয়া থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দেখতে চাওটা যেন আশুলিয়ায় নৌকা প্রেমী মানুষের প্রাণের দাবীতে রূপান্তরিত হয়েছে।

এই কমিটি নিয়ে সাধারণ মানুষেরও আগ্রহের কমতি নেই। চায়ের দোকান গুলোতেও পদপ্রত্যাশীদের নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। তবে সবমহলেই সুমন ভূঁইয়ার পক্ষে পাল্লা ভারি বলে দেখা গেছে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. সুমন হোসেন মীর বলেন, সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়া আমার রাজনৈতিক গুরু, তাঁর হাত ধরেই আমার রাজনীতে আসা । দীর্ঘদিন পদবঞ্চিত থাকলেও তৃণমূল নেতাকর্মীর প্রতি ভালোবার একটুও কমতি নেই তাঁর। করোনার মহা দূর্যোগে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কর্মহীন হয়ে পড়া সাধারণ মানুষের পাশে থেকে তিনি সাধ্যমত সাহায্য সহযোগিতা করেছেন। সিনিয়র নেতাদের দিকনির্দেশনায় এখনো দলের জন্য কঠোর শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন। ফলে এবার থানা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সুমন আহাম্মেদ ভূঁইয়াকে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দিয়ে তাকে মূল্যায়ন করা হোক এটা আমাদের প্রাণের দাবি।