স্বাস্থ্য সুরক্ষায় আপেল সাইডার ভিনেগার

11

অনলাইন ডেস্ক : আপেল সাইডার ভিনেগার ওজন কমানোর উপকারী উপাদান হিসেবে পরিচিত। বিশ্বজুড়ে এটি বেশ জনপ্রিয়। এটি টাইপ ২ ডায়াবেটিস, একজিমা এমনকি উচ্চ কোলেস্টেরলের মতো সমস্ত ধরণের রোগ নিরাময়ে সহায়তা করে। বেশিরভাগ মানুষ সকালে আপেল সাইডার ভিনেগার পান করে থাকেন। তবে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে বিশেষ উপায়ে আপেল সাইডার ভিনেগার পান করলে তা স্বাস্থ্যের পক্ষে বিভিন্ন উপায়ে উপকারী হতে পারে।

আপেল সাইডার ভিনেগার পান করার সঠিক উপায়ঃ

আপেল সাইডার ভিনেগার পানের বিভিন্ন উপায় রয়েছে, আপনি এটি মধু বা লেবুর সাথে মিশ্রিত করতে পারেন। তবে রাতে এটি পান করার সময় পদ্ধতিটি সহজ রাখুন। একগ্লাস পানি কেবলমাত্র এক চা চামচ আপেল সাইডার ভিনেগার যোগ করুন, ভালো করে মিশিয়ে নিন এবং শোবার আগে এটি পান করুন। রাতে সাধারণ পানির বদলে আপনি এটি পান করতে পারেন। নিয়মিত পান করলে উপকার পেতে শুরু করবেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া প্রকাশ করেছে রাতে আপেল সাইডার ভিনেগার পানের কিছু উপকারিতা-

ওজন কমাতে সাহায্য করেঃ

বেশ কয়েকটি গবেষণায় গেছে, আপেল সাইডার ভিনেগার পেটের চর্বি পোড়াতে সহায়তা করতে পারে। ভিনেগারে থাকা এসিটিক অ্যাসিড চর্বি সঞ্চয় হ্রাস করতে পারে, ক্ষুধা দমন করতে পারে এবং চর্বি জ্বলানোর প্রক্রিয়া বাড়িয়ে তোলে। আপেল সাইডার ভিনেগার কখনোই ঘন পান করা উচিত নয়। কারণ এর ফলে বমি বমিভাব হতে পারে, অ্যাসিড রিফ্লাক্সকে আরও খারাপ করতে পারে এবং দাঁতে এনামেল ক্ষয়ের কারণ হতে পারে।

রক্তে শর্করার স্তর কমায়ঃ

যারা ডায়াবেটিসের সমস্যায় ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রে নিয়মিত আপেল সাইডার ভিনেগার বেশ সহায়ক হতে পারে। আপেল সাইডার ভিনেগার রক্তে শর্করার মাত্রা কমিয়ে আনতে পারে। ইনসুলিন সংবেদনশীলতা বৃদ্ধিতে আপেল সাইডার ভিনেগার সেবনও উপকারী প্রমাণিত হয়েছে। বিশেষ করে রাতে এটি পান করলে দিনের অন্যান্য সময়ের চেয়ে বেশি উপকারী হতে পারে।

সকালে মুখের দুর্গন্ধ দূর করেঃ

দুর্গন্ধযুক্ত নিঃশ্বাস সবার জন্যই বিব্রতকর, তবে এটি দূর করা কঠিন। এমনকী রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে সঠিকভাবে দাঁত ব্রাশ করলেও সকালে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হতে পারে। এই দৈনন্দিন সমস্যার একটি সহজ সমাধান হলো আপেল সাইডার ভিনেগার। আপেল সাইডার ভিনেগার ব্যাকটিরিয়া হত্যা করে এবং মুখের স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে।

হজমজনিত সমস্যা সহজ করেঃ

হজমজনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন অনেকেই। যে কারণে সকালে বুকে জ্বালাপোড়া বা গ্যাস্ট্রিকের মতো সমস্যাও হতে পারে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আপেল সাইডার ভিনেগার পান করলে তা হজমজনিত সমস্যা দূর করতে পারে এবং আপনি সকালটিকে পুরোপুরি উপভোগ করতে পারেন। হজমজনিত সমস্যার জন্য এটি একটি দুর্দান্ত ঘরোয়া সমাধান আপেল সাইডার ভিনেগার।

ভালো ঘুমে সহায়কঃ

সব বয়সীর জন্য ভালো ঘুম প্রয়োজন। তবে নিদ্রাহীনতার সমস্যায় ভুগে থাকেন অনেকেই। ঘুমের অভাবে স্থূলতাসহ আরও অনেক সমস্যা হতে পারে। রাতে আপেল সাইডার ভিনেগার পান করলে তা আপনাকে সাত থেকে আট ঘণ্টা নির্বিঘ্ন ঘুম এনে দিতে পারে।