হরিণাকুন্ডুতে বাল্য বিবাহ দেওয়ার দায়ে দু-পক্ষকে উভয় দন্ডে দন্ডীত

17

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলায় সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া মেয়েকে বিবাহ দেওয়ার দায়ে উভয় পক্ষকে ভ্রাম্যমান আদালতে জেল ও নগদ অর্থ জরিমানা করেছেন ইউএনও। সাবেক নিত্যনন্দপূর গ্রামে নির্বাহী ম্যাজিট্রেট ও ইউএনও সৈয়দা নাফিস সুলতানা উভয় পক্ষকে ভ্রাম্যমান আদালতে উভয় দন্ডে দন্ডীত করেছেন।

ইউএনও অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার পড়ন্ত বিকালে ইউএনও সার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে সাবেক নিত্যনন্দপূর গ্রামে সপ্তম শ্রেণীতে লেখাপাড়ায় রত কনের পিতা তুতা মিয়ার বাড়ীতে যায় এবং এসময় তিনি বিয়ের অনুষ্ঠানে কনের পিতাকে এবং ছেলের চাচাকে ছয়(৬)মাস কারদন্ড প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি একই সময়ে বিয়ে করতে আসা কন্যাদহ মাঠপাড়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে লিটন আলীকে নগদ অর্থ দশ(১০) হাজার টাকা জরিমানা করেন।

কনের পিতার কাছথেকে সাবালিকা (১৮ বছর ) না হওয়া পর্যন্ত তার মেয়েকে বিবাহ না দেওয়ার শর্তে মুচলেকা আাদায় করেন তিনি। ভ্রাম্যমান আদলত পরিচালোনা কাজে চরপাড়া পুলিশ প্যাম্পের আইসি এসআই আমিরুল ইসলাম সহ পুলিশ সদস্যরা সহযোগিতা করে।