দৈনিক জনবাণী | বাংলা নিউজ পেপার | Daily Janobani | Bangla News Paper
শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

নাতিকে নিয়ে বৈঠা হাতে নৌকা চালালেন পরিকল্পনামন্ত্রী



প্রকাশ: ১৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:১৬ পূর্বাহ্ন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: স্বজ্জন ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ পরিকল্পনামন্ত্রী এম.এ. মান্নান। সুনামগঞ্জ-৩ (জগন্নাথপুর ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা) আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী তিনি। জন্ম সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে। হাওরপাড়ের গ্রামের কাদামাটিতে বেড়ে ওঠা তার। ২০০৩ সালে যুগ্ম সচিব থেকে অবসর নেওয়ার পর রাজনীতিতে যুক্ত হন তিনি।

এম. এ. মান্নান চাকরি জীবনে উচ্চ পদে চাকরি করা ও অবসর জীবনে রাজনীতিতে যুক্ত হয়ে প্রভাবশালী মন্ত্রী হলেও গ্রামকে ভুলেননি। সময় ও সুযোগ পেলেই চলে আসেন জন্মস্থানে। নিজে বৈঠা হাতে নৌকা চালান তিনি। এজন্য নিজে কাঠ কিনে তৈরি করেছেন একটি ডিঙি নৌকা।

পরিকল্পনামন্ত্রী এম. এ. মান্নান তার ডুংরিয়া গ্রামের পৈত্রিক বাড়ি সরকারকে দান করে দিয়েছেন। সেখানে তিনি মায়ের নামে গড়ে তোলছেন আজিজুননেসা টেক্সটাইল ইনস্টিটিউ। বর্তমানে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কের পাশে শান্তিগঞ্জ উপজেলা সদরে ‘হিজল করচ’ নামে নতুন বাড়ি তৈরি করে বসবাস করছেন তিনি। সেই বাড়ির পাশের নাইন্দা নদী। ঢাকা থেকে কোনো কাজে বাড়িতে আসলেই তিনি নৌকা নিয়ে নদীতে চলে যান। একা একা নৌকা চালান।

তবে নাইন্দা নদীতে এবার নাতি পাসকেল মান্নাকে সঙ্গে নিয়ে একাই ডিঙি নৌকা চালালেন তিনি। শনিবার ( ১৮ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় পরিকল্পনামন্ত্রী হিজল করচ বাড়ির পিছনে নাইন্দা নদীতে তিনি নাতিকে নিয়ে নৌকা চালিয়ে আনন্দে মেতে উঠেন।

পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ মান্নান নাতিকে নিয়ে নৌকা চালাচ্ছেন এমন ছবি ও ভিডিও দলের নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করলে সেটি দ্রুত চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। পাসকেল মান্নান

জানা গেছে, শনিবার ভোরে সিলেট রেলস্টেশন হতে সড়কপথে সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার নিজ বাড়ির আসেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ মান্নান। বাড়িতে উপস্থিত হয়ে তিনি একটু বিশ্রাম নেন। সকাল ৮টার পর নিজ বাড়ির বৈঠকখানায় দলের স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। পরে সকাল সাড়ে ১১টায় নাতি পাসকেল মান্নানকে সঙ্গে নিয়ে একাই নৌকা চালিয়ে নাইন্দা নদীতে বেশ কিছুক্ষন ঘুরেন।

এরপর পরিকল্পনামন্ত্রী নৌকা থেকে নেমে গেলে তার ছেলে সাদাত মান্নান অভি ও নাতি পাসকেল মান্নান কিছু সময় ডিঙি নৌকা চড়েন।

নৌকা থেকে নেমে যাওয়ার সময় উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্যেশে পরিকল্পনা মন্ত্রী এম, এ মান্নান বলেন, এই অল্প একটু সময়ে নিজ বাড়ির পিছনের নদীতে নিজের হাতে নৌকা চালিয়ে যে কত আনন্দ পাই তা বলে বুঝনো যাবে না। বিজয়ের মাসে নিজের হাতে নৌকা চালানোর মজাই আলাদা। আজকে যে আনন্দ পেয়েছি তা আর কখনও পাইনি।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, জন্মের পর থেকেই নৌকা দেখে আসছি, নৌকার সঙ্গে পরিচয়। হাওর ও নৌকা দেখে বড় হয়েছি। আগের গ্রামের গরিব-ধনী সবারই ঘাটে ছোট-বড় ছিল। আমি নৌকা বাওয়া (চালানো) খুব পছন্দ করি। বাড়িতে আসলে নৌকাটি নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করি।

আরও পড়ুন