দৈনিক জনবাণী | বাংলা নিউজ পেপার | Daily Janobani | Bangla News Paper
বৃহঃস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২

বিএনপি দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়: কাদের


নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ১২ আগস্ট ২০২২, ০৫:০৫ অপরাহ্ন

‍“বিএনপি পরিকল্পিতভাবে অপরাজনীতির মাধ্যমে দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। আওয়ামী লীগের কর্মীরা মাঠে নামলে রাজপথ নয়, বিএনপি অলিগলিও খুঁজে পাবে না।”

শুক্রবার (১২ আগস্ট) সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তার বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন।

বিএনপিনেতারা তাঁদের কর্মীদের রাজপথ দখলের নির্দেশ দেওয়া প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “রাজপথ কারও পৈত্রিক সম্পত্তি নয়। রাজপথ জনগণের সম্পদ। কাজেই অতীতের মতো আবারও যদি রাজপথ দখলের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা হয়, তাহলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।”

‘আওয়ামী লীগকে অচিরেই রাজপথে দেখা যাবে’ এমনটা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বিএনপিনেতাদের উদ্দেশে বলেন, “বিএনপির হাঁকডাক লোক দেখানো, কর্মীদের চাঙ্গা রাখার অপকৌশল মাত্র, এসব তাদের ব্যর্থতা ঢাকার কৌশলী অপপ্রয়াস ছাড়া আর কিছু নয়।”

ওবায়দুল কাদের বলেন, “বিএনপি সরকারে গিয়ে আবার লুটপাটের অবাধ সুযোগ সৃষ্টি করতে চায়। আবার হাওয়া ভবন তৈরি করে দেশের অমিত সম্ভাবনার পথ রুদ্ধ করে অন্ধকার পথে হাঁটতে চায়। জনগণ তাদের সে সুযোগ আর কখনও দেবে না।”

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, “এ দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যর্থ বিরোধী দল হিসেবে বিএনপি নিজেরাই দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। দেশকে সংকটে ফেলে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়।”

এ ছাড়া ওবায়দুল কাদের বলেন, “জনগণের প্রতি আস্থাহীন এক রাজনৈতিক দল বিএনপি। তাদের রাজনৈতিক মেরুদণ্ড অত্যন্ত ভঙ্গুর। বিএনপি ক্ষমতায় যেতে চায়, কিন্তু নির্বাচনে যেতে ভয় পায়।”

ওবায়দুল কাদের বলেন, “বিএনপির মহাসচিব নির্বাচিত হয়ে সংসদে যাবেন না, আবার অন্যদের সংসদে পাঠাবেন। বিএনপির এমন লাজ-লজ্জাহীনতা, তাদের প্রতি মানুষের আস্থাহীনতা তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।”

তত্ত্বাবধায়ক সরকার মীমাসিংত ইস্যু, সেটি ভুলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপিনেতাদের উদ্দেশে বলেন, ‘এ দেশে আর তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসার সুযোগ নেই। আগামী জাতীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়াই বিএনপির মঙ্গল। সরকারের পদত্যাগ, সংসদ ভেঙে দেওয়া এসব দিবাস্বপ্ন দেখে কোনো লাভ নেই।

এসএ/

আরও পড়ুন