ছাদ ফুটো হয়ে অফিসে ঢুকছে পানি, দেখার কেউ নেই


Janobani

উপজেলা প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৪:৩২ এএম, ১২ই জুলাই ২০২৩


ছাদ ফুটো হয়ে অফিসে ঢুকছে পানি, দেখার কেউ নেই
অফিসে ঢুকছে পানি

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিস ভবনের ছাদ চুইয়ে পানি পড়ছে। একটু বৃষ্টি হলেই অফিসের মধ্যে পানি জমে যায়। আর এ পানির মধ্যেই কাজ করতে হয় কর্মরত -কর্মচারীদের এ ছাড়া ভবনের অনেক জায়গায় পলেস্তারা খসে পড়েছে। পানি থেকে রক্ষা পেতে টেবিল ও জরুরি কাগজপত্র পলিথিন দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়েছে।


ওই অফিসে গিয়ে দেখা গেছে, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ও অফিস সহকারীর কক্ষে ভবনের পলেস্তারার ভেতর দিয়ে টুপ টুপ শব্দে পানি পড়ছে। মেঝেতে ২ ৩ ইঞ্চি পানি জমে রয়েছে। পানির মধ্যেই কক্ষের এক পাশে বসে কাজ করছেন অফিস সহকারী। দুই বছর ধরে বৃষ্টি হলেই এভাবে পানি পড়ে।


যুব উন্নয়ন অফিস সূত্রে জানা যায়, পুরোনো ভবন থেকে অফিস স্থানান্তর বা মেরামত করার জন্য উপজেলা প্রশাসনকে দুই বছর ধরে বলা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। পুরো বর্ষা মৌসুমে অফিসে বৃষ্টির পানি পড়ে।


অফিস সহকারী প্রবীর চন্দ্র সরকার বলেন, 'অনেক কষ্ট করে পানির মধ্যে অফিস করছি। বৃষ্টির পানির সঙ্গে কখন পত্রি আবার ভবন ধসে পড়ে। এই চিন্তায় সারাক্ষণ থাকতে হয়।


উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. মাসুদ ভূইয়া বলেন, ‘আমি এখানে প্রায় এক বছর আগে যোগদান করেছি। আমাদের অফিসের দুটি কক্ষে বৃষ্টি হলে পানি পড়ে। বৃষ্টির দিন অফিস করা যায়। না। বিষয়টি ইউএনও ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে অনেক দিন ধরে বলে আসছি


উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রইছ আল রেজওয়ান বলেন, ‘এ বিষয়টা আমার জানা ছিলোনা। উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে বিষয়টি আলোচনা করবো।


 উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুর রহমান বলেন, ‘সহকারী কমিশনারের পুরোনো ভবন আমাদের কাছে হস্তান্তর করলে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরকে স্থানান্তর করতে পারব।'


আরএক্স/